যুক্তরাষ্ট্রের নুতন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নীতি ও কৌশল দেখার পর তার সম্পর্কে নিজের মত জানাবেন বলে জানিয়েছেন পোপ ফ্রান্সিস।

স্প্যানিশ পত্রিকা এল পাইস এর সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে রোববার পোপ বলেন, “আমার মতে, তিনি কী করেন সেটি দেখার জন্য আমাদের অপেক্ষা করা উচিত। আমি মানুষকে না দেখেই বিচার করা অথবা আগেভাগেই তার সম্পর্কে মত প্রকাশ করা পছন্দ করি না।”

ট্রাম্প গত শুক্রবার শপথ নেওয়ার পর পোপ তাকে গরিবদের দিকে দৃষ্টি দেওয়া এবং নৈতিক মূল্যবোধের ভিত্তিতে কাজ করা আহ্বান জানিয়েছিলেন।

ট্রাম্পের শপথের পরিপ্রেক্ষিতেই স্প্যানিশ পত্রিকাটি পোপের এ সাক্ষাৎকার নেয়। এতে পোপ বিদেশিদের দূরে রাখতে ট্রাম্পের দেয়াল তৈরি বা কাঁটাতারের বেড়া (যুক্তরাষ্ট্রে মেক্সিকানদের প্রবেশ ঠেকাতে সীমান্তে দেয়াল তোলা) দেওয়ার পরিকল্পনার নিন্দা করেন।

তবে সঙ্গে সঙ্গে এও বলেন, “তিনি (ট্রাম্প) কিভাবে কাজ করেন তা আমরা দেখব। তারপরই আমি মত দেব। আমার মতে, ভবিষ্যতে কী হতে পারে তা ভেবে আগেভাগেই ভয় পাওয়া বা আনন্দ উৎসব করা  বোকামিই হবে।”

নতুন করে পপুলিজম বা লোকরঞ্জনবাদের উত্থান এবং রাজনৈতিক সংকট ডেকে আনার মধ্য দিয়ে এডলফ হিটলারের মত নেতার আগমন ঘটার বিপত্তি সম্পর্কেও সাক্ষাৎকারে সতর্ক করেন পোপ।

ইউরোপ এবং যুক্তরাষ্ট্রে পপুলিজমের উত্থান ঘটা নিয়ে উদ্বিগ্ন কিনা জিজ্ঞেস করা হলে পোপ বলেন, “সংকট আতংক ডেকে আনে, এটি এক ধরনের ত্রাস। আমার মতে, ইউরোপে পপুলিজমের প্রকৃষ্ট উদাহরণ হচ্ছে ১৯৩৩ সালের জার্মানি।”

“ওই সময় জার্মানির জনগণ সংকটে ডুবে গিয়েছিল, আত্মপরিচয় খুঁজছিল। এমন এক নেতা চাইছিল যে সেতা পারবে। তখনই এডলফ হিটলার নামে এক তরুণ নেতার আগমন ঘটে। যিনি বলেছিলেন, আমি পারব। আমি পারব। তখন জার্মানরা হিটলারকে ভোট দিল। তিনি ভোট চুরি করেননি। জনগণই তাকে ভোট দিয়েছিল। আর তারপর তিনিই তার জনগণকে ধ্বংস করলেন।”

ট্রাম্পের ব্যাপারে পোপ আবারও বলেন, তার কাজ দেখার জন্য অপেক্ষা করবেন তিনি।

 

Advertisements